হালকা গরমে বাছুন হালকা পোশাক

662

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তাপমাত্রার এই বাড়তি মেজাজে বাড়ছে সেই গরমের অনুভূতি৷ তাই হালকা গরমে পোশাক বাছুন আরামের বিষয়টি মাথায় রেখে৷

ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পোশাক-আশাকেও নানা পরিবর্তন আসে। গরমের কথা মাথায় রেখে এই সময় মহিলারা চান আরামদায়ক ও ফ্যাশনেবল পোশাক পরতে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কেমন হওয়া উচিত গরমের পোশাক? লাখ টাকার প্রশ্ন৷

পাতলা সুতি কাপড়ের পোশাক পরলে একদিক থেকে যেমন গরম কম লাগবে, অন্যদিকে আরামও লাগবে। ফলে স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করা যাবে। পাতলা তাঁত ও খাদি কাপড়ের পোশাকও এ সময় পরা যায়। গরম এলেই সুতি কাপড়ের প্রসঙ্গ চলে আসে।

গুরুত্বপূর্ণ রং নির্বাচনের বিষয়টিও৷ সাদা, হালকা গোলাপি, হালকা বেগুনি, হালকা নীল, বাদামি, আকাশি, হালকা হলুদ, ধূসরসহ হালকা রঙের পোশাকগুলো প্রাধান্য পাবে। গরমে সাদা ও অন্যান্য হালকা রঙের পোশাক শুধু তাপ শোষণই করে না, সেই সঙ্গে চোখকে দেয় প্রশান্তি।

সুতি কাপড়ের সাথে লিনেন, দুপিয়ান, ভয়েল, মসলিন, চিকন ও তাঁতের কাপড় গরমের জন্য বেশ উপযোগী। উৎসবে পরতে পারেন কৃত্রিম মসলিন বা পাতলা কাতান। সময়োপযোগী কাপড় বুটিক হাউসগুলো ঘুরে কিনতে পারেন। এছাড়াও আইডিয়া দিয়ে নিজের পছন্দ অনুযায়ী পোশাকটা বানিয়ে নিতে পারেন। গরমের পোশাকটা হালকা ও আরামদায়ক হওয়াই ভালো। খেয়াল রাখতে হবে পোশাকটা যেন তাপশোষণ করে কম। তাই প্রতিদিন ব্যবহারের জন্য সুতি কাপড়ই আরামদায়ক। বাজারে গজ কাপড় পাওয়া যাচ্ছে। আছে মসলিন, এমব্রয়ডারি করা সুতি কাপড়, লেস লাগানো সুতি কাপড়, চিকন কাপড়, ওয়াটার প্রিন্ট ইত্যাদি।