মনে মনে, চুপি চুপি..

312

নিজের সাথে, নিজের মনে কথা বলেন? যদি সেই অভ্যাস না থেকে থাকে, তবে শুরু করুন আজই৷ কেন জানেন? গবেষণায় পাওয়া গিয়েছে এক অবাক করা তথ্য৷ নিজেদের সাথে কথা বলা ব্যাক্তিরাই মেধাবী হন আর জীবনে সফল হবার সম্ভাবনাও তাদেরই বেশি থাকে৷ কি করে? চলুন জেনে নিই।

১. মস্তিষ্ককে কর্মক্ষম করে তোলা
গবেষণায় দেখা যায় যে, যে ব্যাক্তিরা নিজেদের সাথে কথা বলে থাকেন, তাদের মস্তিষ্ক বেশি কাজ করে৷  যে কোনও জিনিস অনেক বেশি মনে রাখতে পারেন তারা৷ এক্সপেরিমেন্ট সাইকোলজি জার্নালে মনোবিশেষজ্ঞ ড্যানিয়েল সুইগলি ও গ্যারি লুপিয়া জানান যে, নিজের সাথে কথা বলা সত্যিই উপকারী৷ এ ব্যাপারে ২০ জন ব্যাক্তির ওপর করা এক পরীক্ষায় এই ফল মেলে৷ এ পরীক্ষায় ২০ জনকে কিছু জিনিসের নাম মনে রেখে সেগুলো সুপারমার্কেটে খুঁজতে বলা হয়েছিল৷ এক্ষেত্রে নিজের সাথে যারা জিনিসগুলোর নাম নিয়ে কথা বলেছিলেন তারাই কেবল সফল হতে পেরেছিলেন৷

২. চিন্তাকে স্পষ্ট করে তোলা
মানুষ একই সাথে অনেককিছু ভাবে৷  অনেকগুলো ব্যাপার একসাথে মাথায় কাজ করে তার৷  নিজের সাথে কথা বললে তাই মাথার ভেতরে চলতে থাকা বাকী সব ভাবনাকে বাদ দিয়ে সামনের লক্ষ্যটিকে স্থির করে নেওয়া যায়৷ তাকে স্পষ্ট করে তোলা যায়৷

৩. রাগ দমন করা
মনে করুন, হঠাৎ করে খুব রাগ হয়ে গেল আপনার৷ সবকিছু ভেঙে ফেলতে ইচ্ছে হল৷ কি করবেন তখন আপনি? এমন সময় খুব কম মানুষই অন্যের কথা শুনতে চেষ্টা করেন বা পারেন৷ এক্ষেত্রে একটি আলাদা ঘরে গিয়ে নিজের রাগ আর এর সাথে জড়িত সবকিছু নিয়ে নিজের সাথে কথা বলে দেখুন৷  দেখবেন কিছুক্ষণ কথা বলার পর ঠিক রাগটা কমে গিয়েছে৷  ব্যাপারটা ছেলেমানুষী শোনালেও সত্যিই কাজের৷

৪. চটপটে স্বভাব
নিজেদের সাথে যারা কথা বলে থাকেন অন্যদের চাইতে বেশি আত্মবিশ্বাসী হন তারা৷ দ্রুত কাজ সারতে পারেন৷ নিজেদের কাজ দিয়ে অন্যদের চাইতে আরও একটু এগিয়ে থাকেন সবসময়৷ এতে করে সবার সাথে স্বতস্ফূর্তভাবে কাজ করা আর দ্রুত কোথাও মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা থাকে তাদের৷